আনা, গন্ডা, কড়া, ক্রান্তি ও তিল এর ব্যবহার

 

বাংলাদেশ আমলের পূর্বের সময়ে প্রস্তুতকৃত খতিয়ানসমূহ যথা- সি,এস ও এস, এ খতিয়ানে একাধিক ভূমি মালিকের নাম থাকলে খতিয়ানে মোট জমিতে কোন মালিকের কতটুকু হিস্যা বা অংশ আছে তা আনা, গন্ডা, কড়া, ক্রান্তি ও তিল চিহ্ন দ্বারা প্রকাশ করা হতো। বাংলাদেশ সময়ে আনা, গন্ডা, কড়া, ক্রান্তি ও তিল এর পরিবর্তে খতিয়ানের মোট জমিতে কার কত অংশ জমি আছে তা বুঝাতে সংখ্যা ব্যবহার করা হয়েছে, যেমন- ১.০০, ১.০০০, ১.০০০০ ইত্যাদি। সি,এস খতিয়ানে “অত্র স্বত্বের বিবরণ ও দখলকার” ঘরে ব্যক্তির নাম এবং নামের ডানদিকে “অংশ” ঘরে ব্যক্তির মালিকানাধীন মোট জমির পরিমাণ আনা, গন্ডা, কড়া, ক্রান্তি ও তিল চিহ্ন দ্বারা লেখা থাকে। তাই খতিয়ানে কোন ব্যক্তি কতটুকু সম্পত্তির মালিক তা বের করতে এই চিহ্নসমূহ জানা প্রয়োজন।

 

খতিয়ানের মোট জমিকে ১৬ আনা ধরা হয়। আনার চিহ্ন নিম্নরূপ-
= ১ আনা
৵ = ২ আনা
৶ = ৩ আনা
৷ = ৪ আনা
৷⁄ = ৫ আনা
৷৵ = ৬ আনা
৷৶ = ৭ আনা
৷৷ = ৮ আনা
৷৷⁄ = ৯ আনা
৷৷৵ = ১০ আনা
৷৷৶ = ১১ আনা
৸ = ১২ আনা
৸ ⁄ = ১৩ আনা
৸৵ = ১৪ আনা
৸৶ = ১৫ আনা
১ = ১৬ আনা

 

 

গন্ডার আলাদা কোন চিহ্ন নাই। গণ্ডাকে ১, ২, ৩, ৪…. এভাবে প্রকাশ করা হয়। ২০ গন্ডায় ১ আনা।
১ = ১ গণ্ডা
২ = ২ গণ্ডা
৩ = ৩ গণ্ডা
৪ = ৪ গণ্ডা
৫ = ৫ গণ্ডা
৬ = ৬ গণ্ডা
৭ = ৭ গণ্ডা
৮ = ৮ গণ্ডা
৯ = ৯ গণ্ডা
১০ = ১০ গণ্ডা
১১ = ১১ গণ্ডা
১২ = ১২ গণ্ডা
১৩ = ১৩ গণ্ডা
১৪ = ১৪ গণ্ডা
১৫ = ১৫ গণ্ডা
১৬ = ১৬ গণ্ডা
১৭ = ১৭ গণ্ডা
১৮ = ১৮ গণ্ডা
১৯ = ১৯ গণ্ডা

 

কড়ার চিহ্ন নিম্নরূপ, ৪ কড়ায় ১ গন্ডা।
৷ = ১ কড়া
৷৷ = ২ কড়া
৸ = ৩ কড়া

 

ক্রান্তির চিহ্ন নিম্নরূপ, ৩ ক্রান্তিতে ১ কড়া।
৴ = ১ ক্রান্তি
৴৴ = ২ ক্রান্তি

 

তিলের আলাদা কোন চিহ্ন নাই। তিলকে ১, ২, ৩, ৪…. এভাবে প্রকাশ করা হয়। ২০ তিলে ১ ক্রান্তি।
১ = ১ তিল
২ = ২ তিল
৩ = ৩ তিল
৪ = ৪ তিল
৫ = ৫ তিল
৬ = ৬ তিল
৭ = ৭ তিল
৮ = ৮ তিল
৯ = ৯ তিল
১০ = ১০ তিল
১১ = ১১ তিল
১২ = ১২ তিল
১৩ = ১৩ তিল
১৪ = ১৪ তিল
১৫ = ১৫ তিল
১৬ = ১৬ তিল
১৭ = ১৭ তিল
১৮ = ১৮ তিল
১৯ = ১৯ তিল

 

 

আনা-গন্ডা-কড়া-ক্রান্তি ও তিলের পারস্পরিক তুলনা-

⁄ (১ আনা) = ২০ গণ্ডা

১ গণ্ডা = ৪ কড়া

৷ (১ কড়া) = ৩ ক্রান্তি

৴ (১ ক্রান্তি) = ২০ তিল

 

 

জেনে রাখা ভালঃ

খতিয়ানে যতটুকু জমি থাক না কেন, ১ (ষোল আনা) বলতে খতিয়ানের সম্পূর্ণ জমিকে বুঝায়।

১ (ষোল আনা) = ৩২০ গন্ডা (যেহেতু ২০ গন্ডায় এক আনা)

১ (ষোল আনা) = ১২৮০ কড়া (যেহেতু ৪ কড়ায় এক গন্ডা)

১ (ষোল আনা) = ৩৮৪০ ক্রান্তি (তিন ক্রান্তিতে এক কড়া)

১ (ষোল আনা) = ৭৬৮০০ তিল (২০ তিলে এক ক্রান্তি)

 

 

কোন কোন এলাকায় জমি পরিমাপের ক্ষেত্রে আনা-গন্ডা-কড়া-ক্রান্তি-তিল ব্যবহার করা হয়।

 (এক আনা) = ১৭,২৮০ বর্গফুট

১ গণ্ডা = ৮৬৪ বর্গফুট

১ কড়া = ২১৬ বর্গফুট

(১ ক্রান্তি) = ৭২ বর্গফুট

 (১ তিল) =৩.৬ বর্গফুট

 

 

 

Pls Share this post:
Share
Share this Post :

No comments yet.

Please Post Your Comments & Reviews

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Copyright @ 2021 landregistrationbd.com All RIght Reserved