Land Registration BD

জেনে নিন, মূল দলিল ফেরত গ্রহনের পদ্ধতি ও বিলম্বে জরিমানার হার

জেনে নিন, মূল দলিল ফেরত গ্রহনের পদ্ধতি ও বিলম্বে জরিমানার হার

সাব-রেজিস্ট্রার কর্তৃক রেজিস্ট্রেশনের জন্য দলিল গৃহীত হলে দলিলের দাখিলকারীকে একটি রশিদ দেয়া হয়। রেজিস্ট্রেশন আইন, ১৯০৮ এর ৫২ ধারার অধীন এ রশিদ দেয়া হয় বিধায় একে “৫২ ধারার রশিদ” বলা হয়।

এই রশিদে মুল দলিল ফেরৎ গ্রহনের একটি সম্ভাব্য তারিখ দেয়া থাকে। দলিল দাখিলকারী মূল দলিল গ্রহনের জন্য রশিদে অন্য কোন ব্যক্তিকে মনোনিত করতে পারেন।

দলিলে প্রয়োজনীয় পৃষ্টাঙ্কন, বালাম বহিতে দলিলের নকলকরন ও সূচি বহিতে সূচীকরন শেষ হলে ফেরৎ প্রদানের জন্য প্রস্তুতকৃত দলিল সমুহের একটি তালিকা অফিসের নোটিশ বোর্ডে দেয়া হয়।

এরপর ৫২ ধারার রশিদ জমা দিয়ে দাখিলকারী বা তার মনোনীত ব্যক্তি মূল দলিল গ্রহন করতে পারেন।

আপনি মূল দলিল রেজিস্ট্রির সময় ‘এন- ফি’ (বাংলায় লিখিত দলিলের প্রতি পৃষ্ঠা বা তার অংশ বিশেষের জন্য  জন্য ১৬ টাকা হরে) এবং নকলনবিশগনের পারিশ্রমিক ‘এনএন- ফি’ (বাংলায় লিখিত দলিলের প্রতি পৃষ্ঠা বা তার অংশ বিশেষের  জন্য ২৪ টাকা হরে) কম প্রদান করে থাকলে মূল দলিল গ্রহণের সময় উক্ত ফি পরিশোধ করতে হবে। দলিলটি ইংরেজি ভাষায় লিখিত হলে দলিলের প্রতি পৃষ্ঠা বা তার অংশ বিশেষের  জন্য ২৪ টাকা হরে এন-ফি এবং ৩৬ টাকা হরে এনএন- ফি নগদে পরিশোধ করতে হবে।

দলিল ফেরত গ্রহনের নোটিশ প্রদানের তারিখ হতে এক মাসের মধ্যে মূল দলিল ফেরত না নিলে পরবর্তী প্রতি মাস বা তার অংশ বিশেষের জন্য ৫ টাকা হারে জরিমানা আদায়ের বিধান রয়েছে। তবে বিলম্ব যত মাসই হোক না কেন, জরিমানা ১০০ টাকা এর বেশী আদায়ের বিধান নাই।

রেজিস্ট্রেশন শেষ হওয়ার পর কোন দলিল দাবীবিহীন অবস্থায় ২ (দুই) বছরের বেশি রেজিস্ট্রি অফিসে পরে থাকলে “রেজিস্ট্রেশন আইন, ১৯০৮” এর ৮৫ ধারার বিধান মতে, সেগুলো ধ্বংস করে ফেলা যায়। সুতরাং সময়মত মূল দলিল সংগ্রহ করে সংরক্ষণ প্রয়োজন।

Md. Shahazahan Ali

1 comment

  • মহাশয়, আপনি আমাকে একটু দয়া করে সাহায্য করেন। আমার ঠাকুর দাদার সম্পত্তির কাগজ পত্র আমার কাছেই নাই এখন আমি কি ভাবে পেতে পারি ?

error: Content is protected !!