এক উপজেলার জমির দলিল অন্য উপজেলায় রেজিস্ট্রি করার পদ্ধতি

 

রেজিস্ট্রেশন আইন, ১৯০৮ এর ২৮ ধারা অনুসারে, স্থাবর সম্পত্তি সংক্রান্ত সকল দলিল ঐ সাব-রেজিস্ট্রারের কার্যালয়ে রেজিস্ট্রেশনের জন্য উপস্থাপন করা যায়, যে সাব-রেজিস্ট্রারের অধিক্ষেত্রে ঐ দলিলে উল্লিখিত সম্পূর্ণ বা বেশিরভাগ সম্পত্তি ( Major portion) অবস্থিত।

[পূর্বে দলিলে উল্লিখিত কিছু সম্পত্তি (Some portion) যে সাব-রেজিস্ট্রারের অধিক্ষেত্রে ছিল, সেই সাব-রেজিস্ট্রারের কার্যালয়ে দলিলটি রেজিস্ট্রি করা যেত। কিন্তু The Registration (Amendment) Ordinance, 1985 এর সেকশন ২ এর মাধ্যমে “Some portion” এর স্থলে  “Mejor portion” করা হয়েছে।]

 

রেজিস্ট্রেশন আইনের এই ধারা অনুসারে, একটি দলিলের তফসিলে উল্লিখিত সকল সম্পত্তি একই  উপজেলায় অবস্থিত না হয়ে পৃথক উপজেলায় বা পৃথক জেলায় অবস্থিত হলেও দলিলে উল্লিখিত বেশিরভাগ সম্পত্তি যে সাব-রেজিস্ট্রারের অধিক্ষেত্রে আছে, সেই সাব-রেজিস্ট্রারের কার্যালয়ে দলিলটি রেজিস্ট্রি করা যায়।

তবে এক্ষেত্রে একই জেলার পৃথক উপজেলায় অবস্থিত সম্পত্তির ক্ষেত্রে অতিরিক্ত ‘এম (এ)’- ফি এবং পৃথক জেলার সম্পত্তির ক্ষেত্রে অতিরিক্ত ‘এম (বি)’- ফি পরিশোধ করতে হবে।

কোন সাব-রেজিস্ট্রার একই জেলার পৃথক উপজেলায় অবস্থিত সম্পত্তির দলিল রেজিস্ট্রি করলে বা একই জেলায় অবস্থিত তাঁর নিজ অধিক্ষেত্রের বাইরের দলিল রেজিস্ট্রি করলে তাঁকে রেজিস্ট্রেশন আইনের ৬৪ ধারা অনুসারে অপর সাব-রেজিস্ট্রারের নিকট দলিলটির রেজিস্ট্রেশন সম্পর্কিত স্মারকলিপিসহ দলিলের উপরের পৃষ্ঠাঙ্কন ও সার্টিফিকেট (যদি থাকে) প্রেরণ করতে হবে। স্মারকলিপি প্রাপ্তির পর সাব-রেজিস্ট্রার ১ নম্বর বইয়ে তা ফাইলজাত করবেন।

যেক্ষেত্রে দলিলে উল্লিখিত সম্পত্তি পৃথক জেলায় অবস্থিত হবে, সেক্ষেত্রে সাব-রেজিস্ট্রার দলিলটির রেজিস্ট্রেশন সম্পর্কিত স্মারকলিপি রেজিস্ট্রেশন আইনের ৬৫ ধারা অনুসারে সংশ্লিষ্ট জেলার জেলা রেজিস্ট্রার এর নিকট প্রেরণ করবে।

 


পৃথকভাবে বাংলাদেশের সকল দলিলের রেজিস্ট্রি খরচসহ অন্যান্য তথ্য পেতে এখানে ক্লিক করুন। 


 

2,457 total views, 16 views today

No comments yet.

Please Post Your Comments & Reviews

Your email address will not be published. Required fields are marked *