রেজিস্ট্রি অফিসে কিভাবে জাল দলিল সৃষ্টি হতে পারে জানুন।

 

সাধারনত যে সকল অসৎ উপায়ে দলিল জাল হয়ে থাকেঃ

১। সংশ্লিষ্ট জমিতে তার মালিকানা নাই অথচ তিনি নিজে দলিলদাতা সেজে কোন জমি রেজিস্ট্রি অফিসে রেজিস্ট্রি করালে বা কাউকে মালিক সাজিয়ে নিজ নামে কোন জমি রেজিস্ট্রি করে নিলে দলিলটি জাল হবে।

২। পিতা বা মাতার মৃত্যুর পর তাদের রেখে যাওয়া সম্পত্তিতে সাধারনত তাদের ছেলে-মেয়েরাই মালিক হয়। কিন্তু মেয়েদেরকে বাদ দিয়ে ছেলেরা দলিলের মাধ্যমে কোন জমি বিক্রি করলে বা মেয়েদেরকে বাদ দিয়ে ছেলেরা নিজেদের মধ্যে বন্টননামা দলিলের মাধ্যমে জমি বন্টন করলে দলিলটি জাল হবে।

৩। সরকারী সম্পত্তি কোন ব্যক্তিমালিকানাধীন দেখিয়ে রেজিস্ট্রি করালে দলিলটি জাল হবে।

৪। মৃত ব্যক্তির সম্পত্তি জাল লোক সাজিয়ে বা মৃত ব্যক্তিকে জীবিত দেখিয়ে দলিল রেজিস্ট্রি করালে দলিলটি জাল হবে

৫। মূল মালিক বিদেশে থাকলে, তার অনুপস্থিতিতে জাল লোক সেজে দলিলের মাধ্যমে জমি রেজিস্ট্রি করালে দলিলটি জাল হবে।

৬। মুল দলিল ঘষামাজা বা ওভাররাইটিং করে দাতা বা গ্রহিতার নাম পরিরর্তন, দাগ নম্বর বা খতিয়ান নম্বর বা চৌহদ্দি পরিবর্তন করেও দলিল জাল হতে পারে।

৭। অফিসের সীল এবং সাব-রেজিস্ট্রারের স্বাক্ষর জাল করেও জাল দলিল তৈরি হতে পারে।

 

 


জাল দলিল চেনার সহজ উপায় জানতে এখানে ক্লিক করুন।


 

 


এখানে ক্লিক করে জেনে নিন, দলিল জাল হলে কি করবেন? কিভাবে তা বাতিল করবেন?


 

 

Pls Share this post:
Share

2 Responses to “রেজিস্ট্রি অফিসে কিভাবে জাল দলিল সৃষ্টি হতে পারে জানুন।”